নাটোরে নিজেকে ‘পুলিশের লোক’ পরিচয় দিয়ে পর্যটকের ব্যাগে ইয়াবা ঢোকানোর চেষ্টাকালে শাহীন আলম নামে এক প্রতারককে ধরে পুলিশে দিয়েছে পর্যটক দলের সদস্যরা। ধৃত যুবক শাহীন আলম (২৮) নাটোর শহরতলির উলিপুর আমহাটি এলাকার সমশের আলীর ছেলে।

পুলিশ ও পর্যটকরা জানান, তারা রাজশাহীর ভাটাপাড়া যুব সংঘের কয়েকজন সদস্য ৭টি মাটরসাইকেল নিয়ে নাটোরের পাটুল এলাকায় হালতিবিলে ঘুরতে আসেন। নাটোর শহর অতিক্রম করে দিঘাপতিয়া গণভবন এলাকা ছাড়ার সময় একটি মোটরসাইকেল পিছনে পড়ে।

এ সময় শাহীন ওই মোটরসাইকেল আরোহীদের থামিয়ে জোর করে তাদের ব্যাগ তল্লাশির চেষ্টা করে। এ সময় সে একজনের ব্যাগে ইয়াবা ঢোকানোর চেষ্টা করলে ওই মোটরসাইকেলে থাকা যুবকরা ফোনে তাদের সহযাত্রীদের ডাকেন।

তারা এসে ঘটনাটি ফেসবুক পেজে সরাসারি লাইভ করলে মুহূর্তেই ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে যায়। পরে পর্যটকদের ওই টিম শাহীনের পরিচয় জানার জন্য চাপ দিলে সে সঠিক উত্তর দিতে না পারায় তাকে ধরে নাটোর থানায় সোপর্দ করে।

পর্যটক দলের সদস্য ইমতিয়াজ দিপন তার ফেসবুকে লিখেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ ঘটনার পরবর্তীতে নাটোর সদর থানা তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেয়। পুলিশ পরিচয় দিয়ে আমাদের ফাসানোর চেষ্টা করে এবং এর আগেও সে এরকম কাজের সাথে যুক্ত বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আপনাদের সবার প্রতি অনেক কৃতজ্ঞতা আপনারা যারা শেয়ার করেছেন ও খোঁজখবর নিয়েছেন তাদেরকে অনেক ধন্যবাদ।’

নাটোর থানার ওসি জাহাঙ্গীর আলম জানান, যুবকরা এখনও থানায় রয়েছেন। শাহীন আলমকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তবে এ ঘটনায় এখনও কোনো মামলা দায়ের করা হয়নি।

আরও পড়ুন –