সন্ত্রাসী হামলায় আহত গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রাসেল মোল্লা মারা গেছেন।

মঙ্গলবার (১১ আগস্ট) সকালে খুলনার একটি ক্লিনিকে মারা গেছেন তিনি। গোপালগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

জানা গেছে, গত ২৯ জুলাই রাত আনুমানিক সাড়ে ৮টার দিকে তার ওপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটে। জমি-জমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে তার আপন খালু মাহামুদ কাজী ও অজ্ঞাতনামা আরো বেশ কয়েকজন সন্ত্রাসী রাসেলকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে মারাত্মক আহত করে। ঘোষেরচর কলাবাগান এলাকার বাসায় ফেরার পথে তার ওপর এই সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটে।

মারাত্মক আহতাবস্থায় তাকে প্রথমে গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে তাকে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখান থেকে পরে তাকে ‍খুলনা হেলথ কেয়ার ক্লিনিকে স্থানান্তর করা হলে আজ সকাল সাড়ে ৯টার দিকে মৃত্যু ঘটে তার।

গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা যুব লীগের সভাপতি জাহেদ মাহামুদ বাপ্পী বলেন, রাসেলের ওপর হামলার প্রতিবাদে ও বিচারের দাবিতে আমরা গত রোববার প্রেসক্লাবের সামনের সড়কে মানববন্ধন করেছি। এ ছাড়া ওই দিন জেলা প্রশাসক বরাবর একটি স্মারকলিপি প্রদান করেছি। আমরা এ বর্বরোচিত হত্যাকান্ডের বিচার চাই। দেষীদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় অনতে হবে।

এ বিষয়ে ৩০ জুলাই গোপালগঞ্জ সদর থানায় রাসেল মোল্লার মা বাদী হয়ে মাহামুদ কাজীকে প্রধান আসামি এবং অজ্ঞাত আরো ৫/৬ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন।