শাহজাহান শিশির

চাঁদপুর জেলার কচুয়া উপজেলায় সাইট পরিদর্শনে গিয়ে হামলার স্বীকার হয়েছেন অভিযোগ করে উপজেলা চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা শাহজাহান শিশির সহ তিন জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন জেলা শিক্ষা প্রকৌশল বিভাগের উপ-সহকারী প্রকৌশলী নূর আলম। মামলা নথিভুক্ত হওয়ার পর নিজের ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন শাহজাহান শিশির। সেখানে তিনি দাবি করেন, দুর্নীতির প্রতিবাদ করায় তার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। স্ট্যাটাসটি হুবুহু তুলে ধরা হলো-

“আপনারা ইতিমধ্যে অবগত হয়েছেন যে কচুয়া উপজেলা পরিষদের পাশে শহীদ স্মৃতি উচ্চ বিদ্যালয়ের সাড়ে ৬ কোটি টাকার কাজ চলমান। উক্ত কাজের সরবরাহকৃত নিম্ম মানের পাথর, বালু, রড দেওয়ার খবর পেয়ে আমি সাথেসাথে উক্ত স্থান পরিদর্শন করি। এবং নিম্নমানের নির্মাণসামগ্রী সরেজমিনে দেখি।

আমি ইঞ্জিনিয়ারকে প্রশ্ন করেছিলাম সাড়ে ৬ কোটি টাকার কাজ ইঞ্জিনিয়ার ছাড়া ঢালাই হয়ে কিভাবে? রাতের অন্ধকারে কাজ করে কিভাবে? নিম্নমানের সিলেকশান, পাথর ব্যবহার করা যায় কিনা? বালু চালার চালনি ছাড়া কিভাবে কাজ হয়? উনি কোন সদুত্তর দিতে না পারায় আমি তাকে প্রশ্ন করি ইউএন অফিসের পাশে এত বড় কাজ হয় যে আপনি একজন ইঞ্জিনিয়ার আপনি কি জানেন না এগুলো ব্যবহার করা যায়না? উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মহোদয় তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিলে তখন সকলেই ইউএনও মহোদয়কে সাধুবাদ জানিয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে।

'দুর্নীতির প্রতিবাদ করায় আমার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে' 1
বায়ে প্রকৌশলী নূর আলম ও ডানে উপজেলা চেয়ারম্যন শাহজাহান শিশির।

কিন্তু এখন নতুন নাটক মঞ্চস্থ করে বলা হচ্ছে আমি নাকি চাঁদা দাবি করছি। আমার বিরুদ্ধে একটি বিশেষ মহলের ইন্ধনে মামলাও করা হয়েছে! উল্লেখ্য আমি এর আগেও এরকম নিম্নমানের কাজের বিরুদ্ধে সরাসরি প্রতিবাদ জানিয়েছি।

দুর্নীতির বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলুন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সাথে থাকুন।”

আরও পড়ুন-