স্বাস্থ্য সচিব

নারায়ণগঞ্জ সদরের ১০০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল পরিদর্শনে এসে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব মো. আবদুল মান্নান হুঁশিয়ারি দিয়েছে বলেছেন, দুর্নীতির সঙ্গে আর একঘণ্টাও থাকবেন না।

সোমবার (১৩ জুলাই) দুপুরে স্বাস্থ্য সচিব বলেন, ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রতিদিনই কোনো না কোনো উদ্যোগ আমরা গ্রহণ করছি। স্বাস্থ্য আধিদফতরের ডিজির কাছে ব্যাখ্যা চাওয়াসহ গতকালও একজন প্রফেসর চিকিৎসকে বরখাস্ত করা হয়েছে। রিজেন্ট হাসপাতাল ও জেকেজির যারা অপরাধ করেছে তাদের কাউকে আমরা ছাড় দিচ্ছি না। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন কোনো জায়গায় অনিয়ম-দুর্নীতির প্রমাণ পেলে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।’

উপযুক্ত প্রমাণ পেতে অনেক সময় কিছুটা বিলম্ব হয় জানিয়ে তিনি বলেন, ‘তবে দেশের সরকারি-বেসরকারি যেকোনো হাসপাতালের কোনো ধরনের দুর্নীতির অভিযোগ পেলে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।’

সাথে সাথে ব্যবস্থা নেওয়াসহ বেসরকারি প্রতিষ্ঠান সিলগালা করে দেওয়ার হুঁশিয়ারিও দেন তিনি। ব্রিফিং শেষে স্বাস্থ্য সচিব সদর জেনারেল হাসপাতালে জরুরি সভায় অংশ নেন। পরে নগরীর খানপুরে সরকারি করোনা চিকিৎসা কেন্দ্র ৩০০ শয্যা হাসপাতাল ও সিদ্ধিরগঞ্জে বেসরকারি প্রতিষ্ঠান সাজেদা হাসপাতাল পরিদর্শন করেন।

এসময় স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ের যুগ্ন-সচিব তানজিয়া সালমা, নারায়ণগঞ্জের জেলা প্রশাসক মো. জসীম উদ্দিন, সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ ইমতিয়াজ, ৩০০ শয্যা হাসপাতালের তত্ত্বাধায়ক ডা. গৌতম রায়, জেলা করোনা ফোকাল পারসন ডা. জাহিদুল ইসলাম এবং সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) হাসান বিন আলীসহ প্রশাসনের অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন-