বানের জলে ভাসছে উত্তরাঞ্চল সহ দেশের বহু জেলার মানুষ। ডুবে গেছে থাকার ঘর, নিভে গেছে চুলা। করুণ অবস্থা সিরাজগঞ্জের। স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন লাইটার ইয়ুথ ফাউন্ডেশনের সদস্য সৌরভ ইশতিয়াক সেখানে গিয়েছিলেন সংগঠনটির ত্রান বিতরণ কার্যক্রমের সার্ভে করতে। সেখানে বন্যাদুর্গত একজন মা বলেছেন, দুইদিন ধরে তার বাচ্চা শুধু আটা গুলিয়ে খাওয়াচ্ছেন। সৌরভ নামের এই তরুণ শিশুদের কিনে দিয়ে এসেছেন শুকনো খাবার।

সার্ভেতে গিয়ে বানভাসি মানুষের এমন দুরবস্থা দেখে নিজের ফেসবুক টাইমলাইনে শেয়ার করেছেন তিনি। লিখেছেন- “দুইদিন আগে লাইটার ইয়ুথ ফাউন্ডেশন- এর বন্যার ইভেন্টের সার্ভে করার সময় সিরাজগঞ্জের তলিয়ে যাওয়া গ্রাম আজুপাড়ায় গিয়ে সবচেয়ে বেশি খারাপ লাগে বাচ্চাদের খাবারের কষ্ট দেখে। আমার আপলোড করা ভিডিওতে তো দেখেছেনই, এক মা বলছে দুইদিন ধরে তার বাচ্চা শুধু আটা গুলিয়ে খাচ্ছে…! কাছে গিয়ে বাচ্চাগুলোকে দেখে মন আরো বিষাদ হয়ে যায়, সব বাচ্চা রুগ্ন, একদম শুকিয়ে গেছে…।

তারপর থেকে আমি শুধু বাচ্চাগুলোর কথাই ভাবছিলাম। আজকে সেই আজুপাড়ায় আবার গিয়েছিলাম টোকেন দিতে, যাওয়ার সময় মনে হচ্ছিলো কতদিন বাচ্চাগুলো স্বাভাবিক আবদার করেনা বাবা মায়ের কাছে। দুই টাকা পাঁচটাকা নিয়ে পাশের দোকানে গিয়ে কেক বিস্কুট কিনে খায়না। তখনি মাথায় আসে একটা প্ল্যান, বাচ্চাগুলোকে কিছুটা ভালো সময় কিভাবে দেয়া যায় সেই প্ল্যান…

বৃষ্টিতে আটকে ছিলাম মাঝরাস্তায় নুসরাত জাহান পুষ্প মেসেজ দিলো, আমার প্ল্যান ভাগ হয়ে গেলো দুইভাগে। একভাগের মালিক পুষ্পর আম্মু, আমার আন্টি। আন্টির কথা আরেকদিন বলবো, এত অল্পে বলে শেষ হবেনা।
গ্রামে ঢোকার আগে বাজারে নেমে সদাইপাতি করলাম, একটা ছোটখাটো দোকানে যা যা পাওয়া যায় সেইসব।

'এক মা দুইদিন ধরে বাচ্চাকে শুধু আটা গুলিয়ে খাওয়াচ্ছে' 1
বাচ্চাদের জন্য রীতিমত দোকান সাজিয়ে বসেছেন সৌরভ, মুল্য বাচ্চাগুলোর হাসি!

কয়েকরকম মিষ্টি বিস্কিট, কেক, টোস্ট, জুশ, ব্রেড এসব…নৌকায় তুলে সোজা আজুপাড়া, দোকান সাজাতে সাজাতেই একশোর বেশি কাস্টমার হাজির। আমিও হয়ে গেলাম একদিনের দোকানদার। পণ্য কিনতে টাকা লাগেনা, বাচ্চাগুলোর হাসিই লভ্যাংশ।

পুষ্প তোমাকে অনেক ধন্যবাদ, আবারো এভাবে দোকান সাজিয়ে বসবো পার্টনারশিপে। শেষে একটা অনুরোধ করি সবার কাছে, প্লিজ যে যেভাবে পারেন বানভাসি মানুষের পাশে দাঁড়ান। দুইদিন পর আমরা লাইটাররা ৩০০ পরিবারের কাছে পৌঁছে দেবো কিছুদিন বেঁচে থাকার রসদ, দোয়া করবেন।”

উল্লেখ্য, লাইটার ইয়ুথ ফাউন্ডেশন নামের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনটি বন্যাদুর্গতদের ত্রান সহায়তার দেয়ার জন্য একটি অনলাইন ইভেন্ট খুলেছে। সেখানে সংগঠনটির সদস্য ও শুভাকাঙ্ক্ষীরা সাধ্যমতো অর্থ সহায়তা পাঠাচ্ছেন। পাশাপাশি অনুরোধ করছেন অন্যদেরও। লাইটারের ইভেন্টটি পেতে ক্লিক করুণ- মিশন সারভাইভালঃ বন্যাদুর্গতদের পাশে আমরা

আরও পড়ুন-