উপসর্গহীন আবার কখনও মৃদু উপসর্গ রয়েছে, এমন অনেক ব্যক্তিরও করোনা পজিটিভ হতে পারে। করোনা আক্রান্ত হলে আপনাকে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। এ সময় অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে চলতে হবে।

তবে করোনা আক্রান্ত ব্যক্তি যদি উচ্চরক্তচাপ, ডায়াবেটিস, কিডনি রোগসহ অন্য কোনো রোগে আক্রান্ত হয়ে থাকেন, তিনি অবশ্যই চিকিৎসকে অবগত করবেন। বয়স ৫৫-এর ঊর্ধ্বে, শরীরে কোনো বিশেষ রোগ এবং গর্ভবতী মায়েদের এ রোগের ঝুঁকি বেশি। তাই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন ও সতর্ক থাকুন।

করোনা পজিটিভ হলে অবশ্যই আপনাকে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। এ সময় কিছু কাজ আপনাকে প্রতিদিনই করতে হবে।

আসুন জেনে নিই কী করবেন-

১. রক্তচাপের সমস্যা থাকলে বাড়িতে অবশ্যই পালস অক্সিমিটার রাখতে হবে। নিয়মিত রক্তে অক্সিজেনের মাত্রা পরীক্ষা করতে হবে এবং নিয়মিত রক্তচাপ মাপতে হবে।

২. কোয়ারেন্টিনে থাকলে দিনে বেশ কয়েকবার জ্বর মাপতে হবে।

৩. কিডনি রোগ বা কোনো অন্য সমস্যার জন্য চিকিৎসকের নিষেধ না থাকলে পর্যাপ্ত পানি পান করুন প্রতিদিন।

৪. গলাব্যথার জন্য কুসুম গরমপানিতে গার্গল করুন, গরম চা জাতীয় পানীয় পান করুন দিনে কয়েকবার।

৫. চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে কমপ্লিট হিমোগ্রাম পরীক্ষা (রক্তে শ্বেত রক্তকণিকার পরিমাণ, সিআরপি ফেরিটিনের মাত্রা) করতে হবে।

৬. রক্ত জমাট বাঁধার প্রবণতা থাকলে ডি-ডাইমার পরীক্ষা করতে হবে। এই সমস্যা থাকলে আগে থেকেই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

৭. বুকের এক্স-রে, সিটিস্ক্যান করতে হবে। একদিন অন্তর রক্তপরীক্ষা করুন।

৮. বাড়িতে নিয়মিত গ্লুকোমিটারে সুগার চেক করাতে হবে। এ ছাড়া লিভারজনিত সমস্যার টেস্ট এবং এলডিএইচ ইন্টারলিউকিন-৬ পরীক্ষা করতে হবে।

৯. ঘরে সম্পূর্ণ বিশ্রামে থাকুন। আলাদা বাথরুম ব্যবহার, নিজের খাবার খাওয়া সব কিছু নিয়মিত করতে হবে। ঘরে মাস্ক পরতে হবে।

১০. ঘরে এসি চললে তা ২৫-২৭ ডিগ্রিতে রাখতে হবে।

লেখক:
ঢামেক টেলিমেডিসিন বিভাগের কো-অর্ডিনেটর সহযোগী অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ যায়েদ হোসেন।