পাকিস্তান

পাকিস্তানের মন্ত্রিপরিষদে থাবা বসিয়েছে মহামারী করোনাভাইরাস। দুইদিন আগে পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কোরেশি করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর এবার দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাফর মির্জা করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

আজ সোমবার (৬ জুলাই) তুর্কি সংবাদ মাধ্যম আনাদুলু তাদের প্রতিবেদনে জানায়, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে জাফর মির্জা নিজের করোনা আক্রান্তের খবর নিশ্চিত করেছেন। টুইটারে তিনি লিখেছেন, আমি বর্তমানে নিজ বাসায় আইসোলেশনে আছি। সব ধরনের সতর্কতা নেয়া হয়েছে।

তিনি জানিয়েছেন, প্রাথমিকভাবে করোনার উপসর্গ হালকা বলে জানিয়েছে চিকিৎসকরা। সবার দোয়া চেয়েছেন ফারর মির্জা। টুইটার পোস্টে মন্ত্রণালয় ও সহকর্মীদের নিয়মিত গতিতে কাজ করে যাওয়ারও আহ্বান জানান পাকিস্তানের স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

এর আগে গত শুক্রবার পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কোরেশির শরীরে করোনা শনাক্ত হয়। তিনিও বর্তমানে নিজের বাসায় থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন। টুইট বার্তায় মেহমুদ কুরেশি লিখেছেন, ‌‘গতকাল সামান্য জ্বর অনুভব করায় বাড়িতেই কোয়ারেন্টাইনে ছিলাম। পরীক্ষা শেষে জানতে পেরেছি আমি কোভিড-১৯ পজিটিভ। তবে আল্লাহর রহমতে আমি সুস্থ ও সবল আছি। বাড়ি থেকে আমি আমার দাফতরিক কাজ চালিয়ে যাবো। আমার জন্য দোয়া করবেন সবাই।

ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্যমতে, পাকিস্তানে ২ লাখ ৩১ হাজার ৮১৮ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছেন ৪ হাজার ৭৬২ জন নাগরিক। এর মধ্যে সুস্থ্য হয়ে উঠেছেন ১ লাখ ৩১ হাজার ৬৪৯ জন।

আরও পড়ুন-