বাংলাদেশ ছাত্রলীগ

গত দুইদিন ধরে মিডিয়ায় ভাসছে, ঢাকায় মেস কিংবা বাড়ি ভাড়া করে থাকা শিক্ষার্থীদের প্রতি বাড়িওয়ালাদের অমানবিক আচরণের চিত্র। ভাড়া দিতে বিলম্ব হওয়া অনেক বাড়িওয়ালা সার্টিফিকেট সহ শিক্ষার্থীদের মূল্যবান জিনিসপত্র ময়লার ভাগাড়ে ফেলে দেয়ার ঘটনাও ঘটেছে। শিক্ষার্থীদের এমন অসহায় অবস্থায় পাশে দাঁড়িয়েছে ছাত্র সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ।

মহামারী করোনার প্রাদুর্ভাবের কারনে বন্ধ সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। স্বাভাবিক ভাবেই দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে রাজধানী ঢাকায় গিয়ে পড়াশোনা করা শিক্ষার্থীরা ফিরে গেছে যার যার বাড়ি। যার ফলে ঢাকায় থাকা মেস কিংবা বাড়ির ভাড়া পরিশোধ হয়নি যথাযথ ভাবে। আর এ কারণে বিনা নোটিশে শিক্ষার্থীদের মেস কিংবা বাড়ি থেকে উৎখাত করার পাশাপাশি সার্টিফিকেট সহ মূল্যবান জিনিসপত্র ভাগাড়ে ফেলে দেয়ার একাধিক ঘটনা ঘটেছে। এমন ঘটনাকে ‘অমানবিক’ ও শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যতের পথে প্রতিবন্ধকতা উল্লেখ করে ও এমন ঘটনার নিন্দা জানিয়ে প্রেস বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ।

ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য স্বাক্ষরতি প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, “বিশেষভাবে লক্ষ্য করা যাচ্ছে যে, বা‌ড়ি ভাড়া দিতে বিলম্ব হওয়ায় বিনা নোটিশে কয়েকজন শিক্ষার্থীর সার্টিফিকেট সহ মূল্যবান জিনিসপত্র ভাগাড়ে ফেলে দেওয়া হয়েছে, যা কখনই কাম্য নয়। উক্ত ঘটনায় বাংলাদেশ ছাত্রলীগ পরিবার তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করছে। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ মনে করে, শিক্ষার্থীদের সাথে উক্ত অমানবিক আচরণ তাদের সম্ভাবনাময় ভবিষ্যতের পথে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করবে।”

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, “আপনারা জানেন, বৈশ্বিক করোনা প্রাদুর্ভাবের কারণে দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। এতে অনেক শিক্ষার্থী ভাই-বোনেরা করোনা সংক্রমণ থেকে রক্ষা পেতে যে যার মতো নিরাপদে নিজ নিজ বাড়িতে অবস্থান করছেন। করোনাকালে আমাদের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সচেতনতা অবলম্বন করা, বাড়িতে নিরাপদে থাকা এবং একারণে অনেক শিক্ষার্থী ভাই-বোনেরা বাড়িওয়ালা ও মেস মালিকদের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ রক্ষা করতে পারছে না।”

শিক্ষার্থীদের ঘরছাড়া করায় কঠোর অবস্থানে ছাত্রলীগ 1
ছাত্রলীগের প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

শিক্ষার্থীদের সাথে অমানবিক আচরণ না করার অনুরোধ জানিয়ে ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে বলা হয়, “বাংলাদেশ ছাত্রলীগ প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে যেকোন যৌক্তিক আন্দোলনে, যৌক্তিক বিষয়ে শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়িয়েছে। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ শিক্ষার্থীদের পাশে আছে এবং যেকোন মানবিক, যৌক্তিক বিষয়ে সুষ্ঠু সমাধানের জন্য বদ্ধপরিকর। সুতরাং বিদ্যমান করোনা সংকটে শিক্ষার্থী ভাই-বোনদের সাথে অমানবিক আচরণ না করে তাদের প্রতি সদয় হয়ে যৌক্তিক ও সুষ্ঠু সমাধানের জন্য বাংলাদেশ ছাত্রলীগ এর পক্ষ থেকে সকল বাড়িওয়ালা ও মেস মালিকদের প্রতি অনুরোধ জানানো হচ্ছে। পাশাপাশি শিক্ষার্থী ভাই-বোনদেরকেও তাদের সাথে আলোচনা করে যৌক্তিক সমাধানের জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ জানানো যাচ্ছে।”

বিজ্ঞপ্তিতে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সমাজসেবা সম্পাদক সহ পাঁচ সদস্যের ফোন নাম্বার সংযুক্ত করে বলা হয়, বাড়ি ভাড়া সহ যেকোন সমস্যায় তাদের সাথে যোগাযোগ করার। যৌক্তিক বিষয়ে সুষ্ঠু সমাধানের জন্য বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ চেষ্টা চালাবে বলেও জানানো হয়।

আরও পড়ুন-