২০১৭ সালের ৭ আগষ্ট সিলেট নগরীর সোবহানীঘাটে জালালাবাদ কলেজের সামনে সিলেট মহানগর ছাত্রলীগের কর্মী শাহীন আহমদ ও আবুল কালাম আসিফকে কুপিয়ে জখম করে শিবির ক্যাডাররা। ধারালো অস্ত্রের কোপে শাহীনের ডান হাত বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় এবং বাম হাত ও পায়ে গুরুতর জখম হয়। হামলাকারীরা আসিফের ডান হাতের কজ্বি ও পায়ের রগ কেটে দেয়। এছাড়া ও তার বাম হাতের একাধিক স্থান ও দুই পায়ের বিভিন্ন স্থানে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে

শিবিরের এই নৃশংস হামলার আজকে তিন বছর। জালালাবাদ কলেজে ছাত্রলীগ প্রতিষ্ঠিত করা ও জাতির জনকের ছবি কলেজের স্থাপন করার বিষয়টি আলোচনায় আসলে তাদের উপর র্ববরোচিত এ হামলা চালানো হয়।

এ বিষয়ে হামলার শিকার আবুল কালাম আসিফ ও শাহীন আহমদের সাথে কথা বললে তারা জনতারমুখ’কে জানান- ২০১৭ সালে ৭ আগষ্ট আমাদের প্রাক্তন কলেজে দেশের সংবিধান অনুযায়ী জাতির জনকের ছবি ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি লাগানোর দাবী জানালে তাদের উপর অতর্কিত হামলা চালায় শিবির ক্যাডারারা।প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক সহায়তায় চিকিৎসা শেষে নিজ নিজ বাসাতে অবস্থান করছেন তারা।

বর্তমানে দুইজনই এক রকম পঙ্গু অবস্থার মধ্যে জীবন যাপন করছেন। তারা ন্যায় বিচার ও দলের পক্ষ থেকে যথাযথ মূল্যায়নেক আশা প্রকাশ করেন।