পটুয়াখালীর মহিপুরে ভূমি দস্যুদের হাত থেকে বাঁচতে ১৯ আগস্ট বুধবার সকাল ১০ টায় মহিপুর প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছে মহিপুরের ডালবুগঞ্জ ইউনিয়নের খাপড়াভাঙ্গা গ্রামের মৃত লতিফ মৃধার ছেলে ডাব বিক্রেতা হারুন মৃধা।

লিখিত বক্তব্যের মাধ্যমে তিনি বলেন আমাকে ও আমার স্ত্রী কে কলাপাড়া উপজেলার ৩৩ নং জে এল হরেন্দ্রপুর, খাপড়াভাঙ্গা মৌজার ১ নং খাস খতিয়ানের ৪৬১/৪ নং দাগের অংশ হইতে ১৭১-কে /২০০৩-২০০৪ নং বন্দোবস্ত কেসমূলে ৪৫১/১৭ নং রেজিস্ট্রিকৃত দলিলের মাধ্যমে এক একর জমি প্রদান করা হয়। উক্ত খতিয়ানের উল্লেখিত সম্পত্তির আমি ও আমার স্ত্রী মালিক হওয়া সত্ত্বেও ধুলাসার ইউনিয়নের তারিকাটা গ্রামের নোয়াব আলীর ছেলে চিহ্নিত ভূমি দস্যু আনোয়ার হোসেন ও একই গ্রামের আব্দুল মান্নানের ছেলে সাইদুল ইসলাম সহ ৪-৫ জন প্রভাবশালী মহলের ব্যাক্তিরা গায়ের এবং ক্ষমতার প্রভাবে যোর পূর্বক ভোগ দখল করে আসছে।

উক্ত জমি আমি বুঝিয়া চাইলে তারা বিভিন্ন ধরনের ছল – চাতুরি ও তাল বাহানা করে আসছে বুঝ না দিয়ে। এবং বিভিন্ন মাধ্যমে ভয় ভিতি, খুন, জখম এবং মিথ্যে মামলায় ফাসিয়ে দেওয়ার পাঁয়তারা করিতেছে। এবং ইতিপূর্বে আমার নামে তাদের দায়ের করা ২ টি মিথ্যে মামলা চলমান।

এমতাবস্থায় তিনি সাংবাদিকদের সত্য লেখনির মধ্যমে যথাযথ কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণের করছেন যাতে তার জমি সে ফিরে পেতে পারে।