বিশ্বব্যাপী মহামারি করোনার কারণে দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের চলমান ছুটি আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বৃদ্ধি করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৭ আগস্ট), প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মোহাম্মদ আকরাম আল হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেন। শিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা পর্যায়ের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। আর, প্রথমিক পর্যায়ে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ৩ অক্টোবর পর্যন্ত ছুটি বাড়ানো হয়েছে। তবে, ৪ অক্টোবর সাপ্তাহিক ছুটির দিন হওয়ায় ৫ তারিখ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার কথা রয়েছে।

এছাড়া, করোনার কারণে স্বাভাবিক শিক্ষা কার্যক্রম ব্যহত হওয়ায় ক্ষতি পুষিয়ে নিতে অক্টোবর এবং নভেম্বর মাসকে সামনে রেখে নতুন পাঠ পরিকল্পনা তৈরি করা হচ্ছে বলেও জানানো হয়। আর, পরিস্থিতি বিবেচনায় ডিসেম্বরের ১৯ তারিখের পর বার্ষিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হতে পারে।

এর আগে, বৃহস্পতিবার সকালে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে বিদ্যুতায়ন কার্যক্রম উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘স্কুলের বার্ষিক পরীক্ষা হয়তো হবে না, অটো প্রমোশন কিংবা বিকল্প কোন কিছু ভাবা হচ্ছে। এখন করোনার সময়ে শিক্ষার্থীরা স্কুল করতে পারছে না। পরীক্ষা তো হবে না, হয়তো প্রমোশন দিতে হবে। আমরা দেখছি কী করা যায়।’

তার আগে, গত মঙ্গলবার (২৫ আগস্ট) প্রাথমিক ও এবতেদায়ী পর্যায়ে বার্ষিক পরীক্ষা এবং প্রথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা (পিইসি) বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়। এবার কেন্দ্রীয়ভাবে পিইসি না হয়ে সাধারণ বার্ষিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে গত ১৭ মার্চ থেকে দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। এ সময়ে শিক্ষা কার্যক্রম খুব একটা সচল রয়েছে বলা যায় না, যদিও অনলাইন ও টিভি মাধ্যমে ক্লাস চলছে।