পটুয়াখালীর বাউফলে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে শাওন খন্দকার (২৫) নামের কলেজ ছাত্রকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

আজ সোমবার বেলা ১১টায় বাউফল সদর ইউনিয়নের বিলবিলাস বাজারে এ ঘটনা ঘটে। শাওন বিলবিলাস গ্রামের খন্দকার জাকির হোসেনের ছেলে এবং টুঙ্গি সরকারি কলেজের স্নাতকোত্তর ছাত্র ছিলেন।

নিহতের ভাই জানান, পার্শ্ববর্তী মদনপুর গ্রামের ফয়েজ রাজার ছেলে রাজিব রাজা (২৪) গতকাল রোববার রাতে বিলবিলাস বাজারে বসে শাওন খন্দকারের চোখে টর্স লাইটের আলো মারে। এতে শাওন ক্ষুব্ধ হলে তাদের মধ্যে তর্ক হয়। বাজারের লোকেরা তাদেরকে নিভৃত করে।

আজ সোমবার বেলা ১১টায় শাওন বাড়ি থেকে বিলবিলাস বাজারে গিয়ে একটি দোকানে বসে চা পান করছিলো। তখন রাজিব রাজা গিয়ে ওই ঘটনার জের ধরে শাওনের পেটে ছুরিকাঘাত করে। পরে বাজারের লোকজন শাওনকে উদ্ধার করে বাউফল স্বাস্থ কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পুলিশ শাওনের লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে গেছে।

সংবাদ প্রাপ্তির সাথে সাথে বাউফল থানা পুলিশের একটি দল অতিদ্রুত ঘটনাস্থলে যান এবং অভিযুক্তকে গ্রেফতার করতে তার বাড়ি ঘিরে ফেলে। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে অভিযুক্ত রাজিব তার বাড়ির পিছনে ধান ক্ষেতের ভিতর দিয়ে পালিয়ে পাশের গ্রামে চলে যাওয়ার চেষ্টা করে এবং বিলের মাঝে চলে যায়। তাকে বিলের ভেতর দেখতে পেয়ে পুলিশ সদস্যগণ নিজেদের জীবনের পরোয়া না করে বিলের পানিতে ঝাঁপ দিয়ে মধ্য বিলের গলা পানি পর্যন্ত ধাওয়া করে তাকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

বাউফল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন এবং প্রধান আসামি রাজিব রাজাকে গ্রেফতার করা হয়েছে জানিয়ে ময়না তদন্তের জন্য পটুয়াখালী মর্গে পাঠানো হবে বলে জানান।