বিদ্যুৎ বিভাগ

আগামী ৭ দিনের ভিতর অতিরিক্ত বিদ্যুৎ বিল প্রদানের সাথে জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে বিদ্যুৎ বিভাগ শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিবে। এবং কোন অবস্থায় অতিরিক্ত বিল গ্রহণ করা যাবে না বলে জানিয়েছে বিদ্যুৎ বিভাগ।

আজ ( বৃহস্পতিবার)  জুম ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বিদ্যুৎ বিভাগ ও এর আওতাধীন দপ্তর ও কোম্পানির  বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন ও অগ্রগতির মে ২০২০ মাসের সভা অনুষ্ঠিত হয়। বিদ্যুৎ বিভাগ ২০১৯-২০ অর্থবছরে বিনিয়োগ বা জিওবি খাতে ৮৭ টি, প্রকল্প সহযোগিতা খাতে ১১ টি ও নিজস্ব অর্থায়নে ৬ টি সহ মোট ১০৪ টি প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। মে ২০২০ পর্যন্ত বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি বাস্তবায়নে অর্থিক ৭২.৩৬% ও ভৌত ৭০.৬১% অগ্রগতি হয়েছে । যা জুন ২০২০ এর মধ্যে ৯০% এর আধিক হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

সভায় আলোচনাকালে অতিরিক্ত বিদ্যুৎ বিল প্রদানের বিষয়টি নিয়ে পর্যালোচনা করা হয়। সভায় সিদ্ধান্ত হয় যে, আগামী ৭ দিনের ভিতর অতিরিক্ত বিদ্যুৎ বিল প্রদানের সাথে জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে বিদ্যুৎ বিভাগ শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিবে। কোন অবস্থায় অতিরিক্ত বিল গ্রহণ করা যাবে না। একজন অতিরিক্ত সচিবের নেতৃত্বে টাস্কফোর্স গঠনের সিদ্ধান্ত হয়। সভায় বিতিরণ কোম্পানিগুলোর ব্যবস্থাপনা পরিচালকগণ দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, অতিরিক্ত বিদ্যুৎ বিল প্রদান সংক্রান্ত বিষয়টি নিয়ে সংস্থাগুলো পৃথক পৃথক ভাবে গণমাধ্যমের মাধ্যমে গ্রাহকদের কাছে ব্যাখ্যা করবেন।

এডিপি পর্যালোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ। সভায় তিনি মানব সম্পদ উন্নয়ন, সোলার বিদ্যুৎ প্রকল্প, পিডিবির বিদ্যুৎ হাব, স্মার্ট মিটারসহ প্রযুক্তির ব্যবহার বাড়িয়ে পেপারলেস অফিস করার উপর গুরুত্ব দেন।

বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন ও অগ্রগতি  সম্পর্কিত ভার্চুয়াল এই সভায় অন্যায়ের মাঝে বিদ্যুৎ সচিব ডঃ সুলতান আহমেদ, পিডিবির চেয়ারম্যান মোঃ বেলায়েত হোসেন, আরইবির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মঈন উদ্দিন (অবঃ) , পাওয়ার সেলের মহাপরিচালক মোহাম্মদ হোসেন এবং দপ্তর ও কোম্পানিসমূহের ব্যবস্থাপনা পরিচালকগণ উপস্থিত ছিলেন।