অটোরিকশা

দরিদ্র হলেও লোভ নেই অন্যের টাকার উপর। সততার পরিচয় দিয়ে ৬১ লাখ ফেরত দেওয়া চাঁদপুরের আলোচিত অটোরিকশা চালক সজীবকে একটি নতুন অটোরিকশা উপহার দিলেন বিকাশ এজেন্ট জুয়েল।

বুধবার (২৪ জুন) সকালে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এবং বিকাশ এজেন্ট তার হাতে নতুন গাড়ির চাবি হস্তান্তর করেন। এতোদিন ভাড়া নেওয়া গাড়ি চালালেও এখন নিজের গাড়ি পেয়ে খুশি সজীব।

সজীব জানান, এতোদিন ভাড়া গাড়ি চালাইতাম। এখন বিকাশ কোম্পানি একটা অটো দিছে তার জন্য অনেক খুশি আছি। এসপি স্যার (পুলিশ সুপার) তারা অনেকটা হেল্প করছে।

বিকাশ এজেন্ট আলমগীর আলম জুয়েল জানান, এতোদিন সে ভাড়ায় একটা অটো চালাতো। এখন সে নিজের একটা অটো চালিয়ে নিজের ভবিষ্যতের জন্য ভাড়ার টাকা থেকে কিছু টাকা সেভ করবে, তাতে তার উপকার হবে। এই উদ্দেশ্যেই তাকে সামান্য উপহার টুকু দেওয়া।

সজীবের সততা সমাজের জন্য দৃষ্টান্ত বলে মনে করেন জেলা পুলিশের শীর্ষ কর্মকর্তা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জাহেদ পারভেজ চৌধুরী। তিনি বলেন, আমরা আশাবাদী একদিন সমাজের প্রতিটা লোক সজীব হয়ে উঠবে। সজীবের মত সৎ মন-মানসিকতা নিয়ে সমাজ গঠনে সহযোগিতা করবে।

উল্লেখ্য, গত ২১ জুন সকালে শহরের পৌরসভা কার্যালয়ের পাশে ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক থেকে ৬১ লাখ টাকা উত্তোলন করেন বিকাশ এজেন্ট কর্মী মাসুদ। পরে অটোরিকশায় করে শহরের জোড় পুকুর পাড় এলাকায় ভুল করে টাকা বর্তি ব্যাগ রেখে পার্শ্ববর্তী উপজেলা ফরিদগঞ্জে চলে যায় ঐ কর্মী। দীর্ঘ ৭ ঘন্টা অপেক্ষার পর সদর মডেল থানায় পুলিশের কাছে টাকা ফেরত দেন অটোরিকশা চালক সজীব।

আরও পড়ুন-