বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) কর্মরত চিকিৎসক দম্পতি সন্তানসহ করোনা থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছেন। ওই দম্পতি হলেন, হাসপাতালের লিভার বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. মামুন আল মাহতাব স্বপ্নীল এবং চক্ষু বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. নুজহাত চৌধুরী। তাদের ১৪ বছরের অষ্টম শ্রেণি পড়ুয়া ছেলের ও করোনা টেস্ট রিপোর্ট নেগেটিভ আসে।

শনিবার (২৭ জুন) দুপুরে ডা. মামুন আল মাহাতাব নিজেই এ বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি দুপুরে নিজের ব্যাক্তিগত ফেসবুকে নিজেদের করোনা টেস্টের রিপোর্ট পজেটিভ থেকে নেগেটিভ হওয়ার বিষয়টি তুলে ধরে লিখেন, ‘আমার, ডা. নুজহাত ও সূর্যের কোভিড-১৯ টেস্ট নেগেটিভ এসেছে।’

তিনি জানান, ‘আমাদের জন্য বাংলাদেশ জুড়ে এবং নিজের ধর্ম ও এর বাহিরেও যারা আমাদের জন্য প্রার্থনা করেছেন তাদের কাছে আমরা কৃতজ্ঞ। এবং একজন চিকিৎসক হিসাবে এই দেশের প্রতি আমার দায়িত্ব আরও বাড়িয়েছে।’

এর আগে গত বুধবার (১৭ জুন) অধ্যাপক ডা. মামুন আল মাহতাব নিজেই করোনাভাইরাস পজেটিভ বিষয়টি জানান। তিনি বলেন, ‘গত চারদিন ধরে আমি করোনায় আক্রান্ত, স্ত্রী নুজহাত আর ছেলেটা তিন দিন ধরে। আমরা বাসাতেই আছি, তেমন কোনও শারীরিক সমস্যা নেই।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের কোনও লক্ষণ উপসর্গ ছিল না। তবে কিছু সমস্যা দেখতে পেয়ে পরীক্ষা করাতে দেই। এরপর রিপোর্টে করোনা পজিটিভ আসে। আমরা যাতে দ্রুত সুস্থ হতে পারি সবাই দোয়া করবেন।’

প্রসঙ্গত, করোনায় আক্রান্ত সহযোগী অধ্যাপক ডা. নুজহাত চৌধুরী একাত্তরে শহীদ ডা. আলীম চৌধুরীর মেয়ে। একইসঙ্গে এই দম্পতি ঘাতক-দালাল নির্মূল কমিটির চিকিৎসা সহায়ক কমিটির নেতা।