করোনায় সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার কারণে আতঙ্ক বেড়েছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গে। লকডাউনের এই অবস্থায় একটি শর্ট ফিল্ম শুটিং-কে কেন্দ্র করে সোমবার সকালে তুলকালাম বেঁধেছে রাজ্যের বসিরহাটের গুলাইচণ্ডি গ্রামে।

ভারতের গণমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকা জানাচ্ছে, শুটিং শুরু হতেই কলাকুশলীদের তাড়া করে গ্রামের বাসিন্দাদের একাংশ। কোনও রকমে আশপাশের বাড়িতে লুকিয়ে পড়েন তাঁরা। পরে পুলিশ গিয়ে তাঁদের উদ্ধার করে। লকডাউন ভেঙ্গে শর্ট ফিল্মের শুটিং করতে যাওয়ায় পরিচালক-সহ ২৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আর শুটিং ইউনিটকে বাড়ি ভাড়া দেওয়ার অপরাধে গ্রেফতার করা হয়েছে গ্রামের দুই বাসিন্দাকে।

বসিরহাট পুলিশ জেলার সুপার কঙ্করপ্রসাদ বাড়ুই জানান, শুটিংয়ের জন্য অনুমতি নেয়নি ওই দলটি। কী করে একাধিক গাড়িতে করে এত লোকজন গ্রামে ঢুকে পড়ল, তা তদন্ত করে দেখছে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, গত শনিবার টালিগঞ্জ এলাকা থেকে ২৫ জনের একটি দল বসিরহাটের গুলাইচন্ডি গ্রামে আসে। ওই গ্রামে সপ্তাহখানেক ধরে শুটিং হওয়ার কথা ছিল ‘রক্ত খাদক’ নামক শর্ট ফিল্মের। রবিবার রাতে শুটিং শুরু হওয়ার কথা থাকলেও ঝড়বৃষ্টির জন্য তা বানচাল হয়ে যায়।

সোমবার সকালে একটি আমবাগানে শুটিং শুরু হয়। তখনই লোকজন আসতে থাকেন। পরিচালক ‘অ্যাকশন’ বলার সঙ্গে সঙ্গেই বাগানে হাঁটতে শুরু করেন এক অভিনেত্রী। তখনই জনতা তাড়া করে। কিছু বুঝতে না-পেরে যে যে-দিকে পারেন ছুট লাগান। কয়েকটি বাড়ির দরজা খোলা পেয়ে কেউ শৌচাগারে, কেউ চিলেকোঠায় লুকিয়ে পড়েন। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

আরও পড়ুন-