নোবেল

ওপার বাংলায় সারেগামাপা’তে গেয়ে জনপ্রিয়তা কুড়িয়েছেন যেমন, নানান বিতর্কিত মন্তব্য করে সমালোচিতই হয়েছেন তেমন। জাতীয় সংগীত নিয়ে মন্তব্য, অন্যের লিখা গান নিজের নামে চালিয়ে দেয়ার অভিযোগের সাথে নতুন করে যুক্ত হয়েছে দেশের সংগীত অঙ্গনকে নিয়ে করা তীর্যক ও অহংকারী মন্তব্য।

আজ নিজের কাজের ফিরিস্তি তুলে ধরে ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে মঈনুল আহসান নোবেল লিখেছেন- “তোমাদের লেজেন্ড গত দশ বছর ধরে কয়টা ফ্লপ অথবা হিট রিলিজ করেছে কমেন্টস্ সেকশানে জানাও। থুক্কু বাংলাদেশে তো গত ১০ বছরে ভালো করে কেউ মিউজিকই করেনি। দাঁড়াও তোমার লেজেন্ডদের না হয় আমিই শিখাবো, কিভাবে ২০২০ সালে মিউজিক করতে হয়।”

শুধু তাচ্ছিল্য করেই ছাড়েননি নোবল, রীতিমতো হাসি-ঠাট্টায় মেতেছেন এ নিয়ে। আরেকটি পোস্টে নিজের পেজে ‘ব্যানড’ করাদের সম্বোধন করেছেন ‘গাধা’ বলে। লিখেছেন- “গান রিলিজের আগে প্রায় ১০ হাজার গাধার প্যান্ট, থুক্কু ব্যান খোলা হবে। যাতে করে গাধা গুলো মানুষ হবার দ্বিতীয় সুযোগ পায়। বাই দা রাস্তা (way), আজকের পোস্টটা কিন্তু গাধা ধরার ফাঁদ। এই ফাঁদে পা দিলেই শেষ। হা হা হা।”

গতকাল থেকে দেয়া নিজের পেজের সব পোস্টেই কোনটায় তাচ্ছিল্য, কোনটায় হাসি-ঠাট্টা করেছেন নোবেল। নিজের ইউটিউব চ্যানেলের লিংক শেয়ার করে লিখেছেন- “আগের বার controversy তে ১ মিলিয়ন হয়েছিলো।
দেখি এইবার ২ মিলিয়ন হয় নাকি! সাবস্ক্রাইভ করে সাথে থাকুন!”

নোবেলের এমন কান্ড-কারখানায় আবারও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আলোচনা ও ট্রল চলছে। নোটিজনদের ভাষ্যমতে, নতুন গান রিলিজ ও সস্তা জনপ্রিয়তা পেতেই এমন ভাঁড়ামি করছেন এই উঠতি কণ্ঠশিল্পী।

আরও পড়ুন-