সরস্বতী পূজোর দিন নির্বাচন নয়- এই দাবিতে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিন সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনের তারিখ পেছানোর দাবীতে টানা আন্দোলন চলছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। গতকাল দুপুরে পূর্ব ঘোষিত অবস্থান কর্মসূচি শেষে আমরণ অনশনে বসেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাধারণ শিক্ষার্থীরা, যা ২৯ ঘণ্টার বেশী সময় পেরিয়ে এখনো চলমান।

ইতিমধ্যেই অনশনব্রত শিক্ষার্থীদের মধ্যে জগন্নাথ হল সংসদের ভিপি উৎপল বিশ্বাস ও জিএস কাজল দাস সহ ০৯ জন অসুস্থ হয়ে পড়েছে। যাদের মধ্যে ৩ জনকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আমরণ অনশনরণ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাধারণ শিক্ষার্থীদের সাথে পূর্ণ একাত্মতা প্রকাশ করেছেন ডাকসু জিএস গোলাম রাব্বানী। গতকাল সংহতি প্রকাশ করেন ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুর, এছাড়া শিক্ষার্থীদের এই আন্দোলনের শুরু থেকে যুক্ত ছিলেন ডাকসু এজিএস ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন। ইতিমধ্যেই দুই সিটির বড় দুই দলের মেয়র প্রার্থীরাও নির্বাচন পেছানো যায় কিনা ভেবে দেখতে বলেছেন ইসিকে।

এখন অব্দি অনড় অবস্থানেই আছে নির্বাচন কমিশন। গতকাল (১৬ জানুয়ারি) নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব মো. আলমগীর জানান, উত্তর সিটিতে ২৭ টি প্রতিষ্ঠানে এবং দক্ষিণ সিটিতে ২৬টি প্রতিষ্ঠানে পূজা হয়। যা মোট কেন্দ্রের ২ দশমিক ১৫ শতাংশ। তিনি আরও বলেন, ‘পূজা হলো ২৯ জানুয়ারি। নির্বাচন হবে ৩০ জানুয়ারি। কোনো দ্বন্দ্ব নেই।’