পূজার দিনে নির্বাচন না দেয়ার দাবিতে উত্তাল হয়ে উঠেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস, বিকাল থেকে শিক্ষার্থীরা জড়ো হতে শুরু করেন রাজু ভাষ্কর্যে। এখন শিক্ষার্থীরা শাহবাগে অবস্থান করছেন।

নির্বাচন কমিশন ঘোষিত, ৩০ জানুয়ারী ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনের দিনেই সরস্বতী পূজা। গত ১২ জানুয়ারী ডাকসু ও বাংলাদেশ ছাত্র ঐক্য পরিষদ নির্বাচন পিছানোর দাবিতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করে। এবং জগন্নাথ হল সংসদ নির্বাচন কমিশন বরাবর স্বারক লিপি পেশ করে। এর আগে প্রেস বিজ্ঞপ্তি দিয়েছেন ডাকসুর এজিএস সাদ্দাম হোসেন।

নির্বাচন পেছানোর দাবিতে আজ দুপুরে রাজু ভাষ্কর্যে পূর্বঘোষিত প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেছে জগন্নাথ হল সংসদ ও হলের সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এরমধ্যেই বিকালে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে খবর আসে, সরস্বতী পূজার কারণে নির্বাচন পেছানোর জন্য আদালতের রিট খারিজ করে দিয়েছে হাইকোর্ট। ইসি আগেই জানিয়েছে, ভোটের দিন পরিবর্তন হবে কিনা এই বিষয়ে আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী সিদ্ধান্ত নেবেন নির্বাচন কমিশন।

সিটি নির্বাচন পেছানোর দাবিতে উত্তাল ঢাবি, বাড়ছে শিক্ষার্থী সমাগম 1

আন্দোলনে অংশ নেয়া জাগন্নাথ হল সংসদের সাহিত্য সম্পাদক জয়জিৎ দত্ত জানান- ‘দাবি না মেনে নেয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে। স্বাধীনতার চার স্তম্ভের একটি- অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ। পূজার দিনে নির্বাচন এই চেতনা পরিপন্থি কাজ৷ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এটি হতে দিবে না।’

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত চলছে আন্দোলন করছে, বাড়ছে সমাগম! শিক্ষার্থীদের দাবি- পূজার দিনে নির্বাচন অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের পথে অন্তরায় এবং হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের অগ্রাহ্য করা সামিল। আন্দোলনে শিক্ষার্থীরা শ্লোগান দিচ্ছে- ‘বঙ্গবন্ধুর বাংলায়, বৈষম্যের ঠাই নাই’। ‘পূজার দিনে নির্বাচন, মানি না, মানবো না’।